ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪
Sharenews24

সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আবারও সুখবর

২০২৩ সেপ্টেম্বর ০৪ ১৫:৫০:৫৫
সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আবারও সুখবর

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিল (জিপিএফ) ও প্রদেয় ভবিষ্য তহবিলে (সিপিএফ) টাকা জমা রাখার বিপরীতে সুদের হার আবার ১১ থেকে ১৩ শতাংশ করা হয়েছে।

গত ০৩ আগস্ট রোববার অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ এই বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে বলেছে, ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত জমা রাখলে ১৩ শতাংশ হারে মুনাফা মিলবে। ১৫ লাখ ১ টাকা থেকে ৩০ লাখ জমা রাখলে মুনাফা পাওয়া যাবে ১২ শতাংশ হারে। আর ৩০ লাখ ১ টাকা বা তার বেশি জমা রাখলে মুনাফা পাওয়া যাবে ১১ শতাংশ হারে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সব সিপিএফভুক্ত প্রতিষ্ঠানের (স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, করপোরেশন ইত্যাদি) আর্থিক সংগতি একরকম না হওয়ায় প্রতিষ্ঠান/সংস্থা তাদের নিজস্ব আর্থিক বিধিবিধান ও আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী, ছকে উল্লেখিত স্লাবভিত্তিক হারকে সর্বোচ্চ হার বিবেচনায় নিয়ে সিপিএফ -এ জমা করা আমানতের উপর হ্রাসকৃত হারে মুনাফা নির্ধারণ করতে পারবে।

বর্তমানে দেশে চার প্রকারের সঞ্চয়পত্র চালু রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে, পরিবার সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র, পেনশনার সঞ্চয়পত্র ও পাঁচ বছর মেয়াদী বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র।

১৮ ও তদুর্ধ্ব বয়সের যে কোনো বাংলাদেশি মহিলা, শারীরিক প্রতিবন্ধী পুরুষ ও মহিলা এবং ৬৫ বছর ও তার বেশি যে কোনো বাংলাদেশি পুরুষ ও মহিলা পরিবার সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন।

এই সঞ্চয়পত্রে প্রথম বছরে সাড়ে ৯ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরে ১০ শতাংশ, তৃতীয় বছরে সাড়ে ১০ শতাংশ, চতুর্থ বছরে ১১ শতাংশ এবং পঞ্চম বছরে ১১.৫২ শতাংশ হারে মুনাফা পাওয়া যায়।

পাঁচ বছর মেয়াদী বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্রে প্রথম বছরে ৯.৩৫ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরে ৯.৮০ শতাংশ, তৃতীয় বছরে ১০.২৫ শতাংশ, চতুর্থ বছরে ১০.৭৫ শতাংশ এবং পঞ্চম বছরে ১১.২৮ শতাংশ হারে মুনাফা পাওয়া যায়।

সকল শ্রেণি ও পেশার বাংলাদেশি নাগরিক এই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে পারবেন। এছাড়া আয়কর বিধিমালা, ১৯৮৪ (অংশ-২) এর বিধি ৪৯-এর উপ-বিধি (২) এ সংজ্ঞায়িত স্বীকৃত ভবিষ্য তহবিল এবং ভবিষ্য তহবিল আইন, ১৯২৫ (১৯২৫ এর ১৯ নং) অনুযায়ী পরিচালিত ভবিষ্য তহবিলও বিনিয়োগ করতে পারবে।

সঞ্চয়পত্রে তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক প্রথম বছরে ১০ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরে সাড়ে ১০ শতাংশ এবং তৃতীয় বছরে ১১.০৪ শতাংশ হারে মুনাফা পাওয়া যায়।

সকল শ্রেণি ও পেশার বাংলাদেশি নাগরিক এবং অটিস্টিকদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা অন্য যে কোনো অটিস্টিক সহযোগী প্রতিষ্ঠান (যাদের সঞ্চয়পত্রের মুনাফা অটিস্টিকদের সহায়তায় অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে) এই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে পারবে।

পেনশনার সঞ্চয়পত্রে প্রথম বছরে ৯.৭০ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরে ১০.১৫ শতাংশ, তৃতীয় বছরে ১০.৬৫ শতাংশ, চতুর্থ বছরে ১১.২০ শতাংশ এবং পঞ্চম বছরে ১১.৭৬ শতাংশ হারে মুনাফা পাওয়া যায়।

এই সঞ্চয়পত্র অবসরভোগী সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারী, সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপত, সশস্ত্র বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সদস্য, মৃত চাকরিজীবীর পারিবারিক পেনশন সুবিধাভোগী স্বামী, স্ত্রী, সন্তানরা কিনতে পারেন।

শেয়ারনিউজ, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাঠকের মতামত:

অর্থনীতি এর সর্বশেষ খবর

অর্থনীতি - এর সব খবর



রে