ঢাকা, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকা ত্যাগের নির্দেশ রাখাইনের বাসিন্দাদের

২০২৪ জুন ১৮ ১২:০৪:৩০
বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকা ত্যাগের নির্দেশ রাখাইনের বাসিন্দাদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিদ্রোহী সংগঠন ইউনাইটেড লীগ অব আরাকান রাখাইনের বাসিন্দাদের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। এই গোষ্ঠীর সশস্ত্র শাখা আরাকান আর্মি (এএ) কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজ্যের নিয়ন্ত্রণ দখল করতে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে লড়াই করছে।

সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউনাইটেড লিগ অব আরাকান বলেছে, মংডু শহরের অবশিষ্ট জান্তা ঘাঁটিগুলো ঘেরাও করা হয়েছে। দেশটির সামরিক বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে শহরটিকে গুরুত্বপূর্ণ ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করছে এবং যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করেছে বলে দাবি করা হয়েছে।

এমতাবস্থায় যেসব এলাকায় জান্তা বাহিনীর শক্তিশালী অবস্থান রয়েছে, সেসব এলাকা থেকে বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে ইউনাইটেড লিগ অব আরাকান।

এর আগে, গত মে মাসে মংডুকে অগ্রাধিকার দেওয়ার পূর্বে পার্শ্ববর্তী বুথিডাং শহর দখল করে বিদ্রোহীরা। দুটি শহরই বাংলাদেশ সীমান্তের কাছে উত্তর-পূর্ব রাখাইন রাজ্যে অবস্থিত। এসব এলাকায় মূলত রোহিঙ্গারা বসবাস করেন।

শুক্রবার (১৪ জুন) এক ঘোষণায় আরাকান আর্মি দাবি করে, তারা এক সপ্তাহে আরও চারটি জান্তা ক্যাম্প দখল করেছে, যার মধ্যে মাওয়ায়াদ্দি স্ট্র্যাটেজিক কমান্ড বেস এবং না খাউং টো ক্যাম্পও রয়েছে। লড়াই চলাকালে তাদের হাতে জান্তা বাহিনীর মাওয়ায়াদ্দির স্ট্র্যাটেজিক কমান্ডার কর্নেল তাইজার হতেসহ প্রায় ২০০ সেনা নিহত হয়েছেন।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী তাদের আহ লেল থান কিয়াউ ক্যাম্প এবং মাওয়ায়াদ্দি স্ট্র্যাটেজিক কমান্ড বেস উভয়কে রক্ষা করতে বিমান হামলা এবং কামানের গোলা ব্যবহার করেছিল বলে জানানো হয়েছে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে শহর রয়েছে প্রায় ১৭টি। এর মধ্যে নয়টিরই নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করেছে আরাকান আর্মি।

২০২৩ সালের নভেম্বর থেকে রাজ্যটিতে জান্তা বাহিনীর সঙ্গে তীব্র লড়াই চলছে তাদের। পার্শ্ববর্তী চিন রাজ্যের পালেতওয়া শহরেরও নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করেছে জাতিগত গোষ্ঠীটি।

তারিক/

পাঠকের মতামত:

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ খবর

আন্তর্জাতিক - এর সব খবর



রে