ঢাকা, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

১৯৭৫ সালের সেনাপ্রধান কে এম সফিউল্লাহ আইসিইউতে

২০২৪ জুন ১৮ ২০:০২:২৩
১৯৭৫ সালের সেনাপ্রধান কে এম সফিউল্লাহ আইসিইউতে

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহান মুক্তিযুদ্ধের ৩ নং সেক্টর কমান্ডার কে এম সফিউল্লাহ গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিনি ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার (১৮ জুন) শফিউল্লাহর পরিবারের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের জানানো হয়, প্রায় ৯০ বছর বয়সি সফিউল্লাহ দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ। তিনি ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, থাইরয়েডে জটিলতা, ফ্যাটি লিভার, ডিমেনশিয়াসহ নানা জটিল স্বাস্থ্য জটিলতায় ভুগছেন।

সিএমএইচ সূত্রে জানা যায়, ১০ জুন হাসপাতালের অফিসার্স কেবিনে ভর্তি হন কে এম সফিউল্লাহ। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমে গেলে এইচডিইউতে স্থানান্তর করা হয়। পরে নেওয়া হয় আইসিইউতে।

১৯৭১ সালে সফিউল্লাহ ছিলেন জয়দেবপুরে দ্বিতীয় ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্টের দ্বিতীয় প্রধান। তার নেতৃত্বেই ওই রেজিমেন্টের বাঙালি সৈন্যরা বিদ্রোহ করে।মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য তিনি ‘বীর উত্তম’ খেতাব পান।

১৯৩৪ সালের ২ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জন্ম নেওয়া কে এম সফিউল্লাহ দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত সেনাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭৫ সালে যখন একটি বিপথগামী সেনা সদস্য তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়, তখন সফিউল্লাহ সেনাপ্রধান ছিলেন।

তিনি ১৯৯৫ সালে আওয়ামী লীগে যোগ দেন এবং ১৯৯৬ সালে নারায়ণগঞ্জ-১ আসন থেকে নৌকা প্রতীকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর খন্দকার মোশতাক আহমেদের নেতৃত্বে গঠিত সরকারের প্রতিও জেনারেল সফিউল্লাহ আনুগত্য প্রকাশ করেন। তবে কিছুদিনের মধ্যেই তাকে সেনাপ্রধানের পদ হারাতে হয়।

জেনারেল সফিউল্লাহ অবশ্য পরে বলেছিলেন, তিনি তৎকালীন বিমান বাহিনী প্রধান এবং নৌবাহিনী প্রধানের সাথে মোশতাক সরকারকে সমর্থন করতে 'বাধ্য' হয়েছিলেন।

মামুন/

পাঠকের মতামত:

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে