ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

সুইস ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছেন বাংলাদেশিরা!

২০২৪ জুন ২০ ২২:০৭:৪৩
সুইস ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছেন বাংলাদেশিরা!

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের অঢেল টাকার মালিকরা নিরাপদ মনে করে সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ব্যাংককে তাদের টাকা আমানত রেখেছেন, গত এক বছরে তারা তাদের আমানত নজিরবিহীন গতিতে তুলে নিচ্ছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুইস ন্যাশনাল ব্যাংক (এসএনবি) প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে বাংলাদেশিদের আমানত তুলে নেওয়ার তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমার পরিমাণ গত বছর ৫.৫০ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ মিলিয়ন ফ্রাঁ-তে। দেশের ব্যাংকগুলো থেকে বাংলাদেশিদের টাকা তোলার এই গতি তীব্র বলে জানা গেছে।

গত কয়েক বছর ধরে সুইস ব্যাংক থেকে বাংলাদেশিদের টাকা তোলার হার বাড়ছে। এর আগে, এসএনবি-র ২০২২ সালের বার্ষিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০২১ সালেও সুইস ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের আমানতের পরিমাণ ছিলো ৮৭ কোটি ১১ লাখ সুইস ফ্রাঁ। কিন্তু পরের বছর অর্থাৎ ২০২২ সালে তা কমে ৫ কোটি ৫০ লাখ ফ্রাঁতে দাঁড়ায়।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসএনবি বলেছে, সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের আমানত ৫ কোটি ৫০ লাখ ফ্রাঁ থেকে আরও কমে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৮০ লাখ ফ্রাঙ্কে। প্রতি ফ্রাঙ্ক ১৩১ টাকা হিসাবে এর পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ২৩৮ কোটি টাকায়।

প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ২০২১ সালে সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের জমাকৃত অর্থের পরিমাণ ৮৭২ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঙ্কে পৌঁছেছে। যা দেশের ব্যাংকগুলোতে বাংলাদেশিদের জমানো অর্থের সর্বোচ্চ পরিমাণ।

সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশিদের মোট আমানতের মধ্যে ব্যক্তিগত, ব্যাংক এবং অন্যান্য এন্টারপ্রাইজ আমানতসহ সব ধরনের তহবিল অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ বৈধ ও অবৈধভাবে উপার্জিত অর্থ সুইস ব্যাংকে রেখেছেন। দেশের কঠোর গোপনীয় ব্যাংকিং নীতির কারণে সারা বিশ্বের মানুষ সেখানে টাকা জমা রাখে।

সুইস আইন দৃঢ়ভাবে ভোক্তাদের গোপনীয়তা রক্ষা করে। এই আইনের ফলে দেশের ব্যাংকগুলো কোনো অবস্থাতেই গ্রাহকের তথ্য কারো কাছে প্রকাশ করতে বাধ্য নয়। ফলে কার, কেন, কীভাবে টাকা ব্যাংকে জমা হয়েছে সে বিষয়ে কোনো তথ্যই দেয় না ব্যাংকগুলো।

তবে সম্প্রতি দেশটির ব্যাংকগুলোতে গোপনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় ও সমালোচনা দেখা দেয়ায় অনেকে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক থেকে বিশ্বের অন্যান্য দেশে তাদের অর্থ সরিয়ে নিচ্ছেন।

মামুন/

পাঠকের মতামত:

অর্থনীতি এর সর্বশেষ খবর

অর্থনীতি - এর সব খবর



রে