ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

৩০ শতাংশ শেয়ার নেই ফার্মা খাতের পাঁচ কোম্পানির

২০২৩ সেপ্টেম্বর ০৯ ১৯:২৯:৪৫
৩০ শতাংশ শেয়ার নেই ফার্মা খাতের পাঁচ কোম্পানির

নিজস্ব প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ফার্মা ও রসায়ন খাতে তালিকাভুক্ত ৩৪টি কোম্পানির মধ্যে ৫টি কোম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার ৩০ শতাংশ নেই। কোম্পানিগুলো হলো-একটিভ ফাইন, এএফসি এগ্রো, সেন্ট্রাল ফার্মা, ফার্মা এইড ও সালভো কেমিক্যাল লিমিটেড।

শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সম্প্রতি নির্দেশনা জারি করেছে, যেসব কোম্পানির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার পরিশোধিত মূলধনের ন্যূনতম ৩০ শতাংশের কম, তাদেরকে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণ করার পরিকল্পনা বিএসইতে জমা দিতে হবে।

অন্যথায় এসব কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদে ন্যুনতম ২ জন করে স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগ করা হবে। এছাড়াও নিয়ন্ত্রক সংস্থার নির্দেশনা পরিপালন না করায় সিকিউরিটিজ আইনে কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত মিউচুয়াল ফান্ড বাদে ৩৭৫টি কোম্পানির মধ্যে বর্তমানে ৩০ শতাংশের কম শেয়ার রয়েছে এমন কোম্পানির সংখ্যা মাত্র ৩১টি। এর মধ্যে ফার্মা ও রসায়ন খাতের কোম্পানি রয়েছে ৫টি।

এর আগে বেক্সিমকো ফার্মার উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার ছিল ৩০ শতাংশের কম। কোম্পানিটি বাজার থেকে প্রয়োজনীয় শেয়ার সংগ্রহ করে ৩০ শতাংশ পূরণের বাধ্যবাধকতা পালন করেছে। বর্তমানে কোম্পানিটিতে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ৩০.১৪ শতাংশ।

একটিভ ফাইন

একটিভ ফাইনের মোট শেয়ার সংখ্যা ২৩ কোটি ৯৯ লাখ ৩৬ হাজার ৫৮০টি। কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ১২.০৪ শতাংশ। সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার পূরণ করতে কোম্পানিটির আরও ১৭.৯৬ শতাংশ শেয়ার প্রয়োজন। এর জন্য কোম্পানিটিকে ৪ কোটি ৩০ লাখ ৯২ হাজারের বেশি শেয়ার সংগ্রহ করতে হবে।

কোম্পানিটির শেয়ার গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর থেকেই ফ্লোর প্রাইসে অবস্থান করছে। এই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে নামেমাত্র। মাঝে একদিন ফ্লোর প্রাইসেই ২২ হাজার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কিন্তু ফ্লোর প্রাইস টপকাতে পারেনি।

এএফসি এগ্রো

এএফসি এগ্রোর মোট শেয়ার সংখ্যা ১১ কোটি ৫২ লাখ ১৬ হাজার ২০০টি। কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ২৭.৮৪ শতাংশ। সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার পূরণ করতে কোম্পানিটির ২.১৬ শতাংশ শেয়ার প্রয়োজন। এর জন্য কোম্পানিটিকে ২৪ লাখ ৮৮ হাজারের বেশি শেয়ার সংগ্রহ করতে হবে।

কোম্পানিটির শেয়ারও গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ফ্লোর প্রাইসে অবস্থান করছে। নভেম্বর মাসে কয়েক দিনের জন্য শেয়ারটি ফ্লোর প্রাইসের ওপরে লেনদেন হয়েছিল। এই সময়ে শেয়ারটির লেনদেনও বেড়েছিল। কিন্তু দুই মাস পর ১১ নভেম্বর থেকে ফের ফ্লোর প্রাইসে স্থান নিয়েছে কোম্পানিটির শেয়ার। যা এখন পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। এর মাঝে একদিন ৯৭ হাজারের বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। বাকি দিনগুলোকে শেয়ারটির লেনদেন হয়েছে নামমাত্র।

সেন্ট্রাল ফার্মা

সেন্ট্রাল ফার্মার মোট শেয়ার সংখ্যা ১১ কোটি ৯৮ লাখ ৮৪৪টি। কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ২৫.৮৯ শতাংশ। সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার পূরণ করতে কোম্পানিটির আরও ৪.১১ শতাংশ শেয়ার প্রয়োজন। এর জন্য কোম্পানিটিকে ৪৯ লাখ ২৪ হাজার শেয়ার সংগ্রহ করতে হবে।

ফ্লোর প্রাইস আরোপের পর ফার্মা খাতের এই কোম্পানিটির শেয়ার ফ্লোর প্রাইসের ওপরেই লেনদেন হচ্ছে। চলতি বছরের জুলাই মাসের ১৩ থেকে ১৬ তারিখ পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার ১৭ টাকার ওপরে কেনাবেচা হয়েছে। সেই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭৫ লাখের বেশি। গত এক মাস যাবতও কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেনে ভালো গতি দেখা যাচ্ছে।

ফার্মা এইড

ফার্মা এইডের মোট শেয়ার সংখ্যা ৩১ লাখ ২০ হাজার। কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ২৩.৫৯ শতাংশ। সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার পূরণ করতে কোম্পানিটির ৬.৪১ শতাংশ শেয়ার প্রয়োজন। এর জন্য কোম্পানিটিকে প্রায় ২ লাখ শেয়ার সংগ্রহ করতে হবে।

ভালো ডিভিডেন্ড দেওয়া কোম্পানিটির শেয়ার গত বছরের ৯ নভেম্বর থেকে ফ্লোর প্রাইসে এক জায়গায় ঠায় দাঁড়িয়ে আছে। প্রতিদিন কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয় এক’শ-দু’শটির মতো। তবে মাঝে শেয়ারটির লেনদেন একদিন লাখে ওঠতে দেখা গেছে। কিন্তু সেদিনও ফ্লোর প্রাইস অতিক্রম করতে পারেনি।

সালভো কেমিক্যাল

সালভো কেমিক্যালের মোট শেয়ার সংখ্যা ৫ কোটি ৫০ লাখ ২২ হাজার ৭৯৩টি। কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালকদের সম্মিলিত শেয়ার রয়েছে ২৫.১৮ শতাংশ। সম্মিলিত ৩০ শতাংশ শেয়ার পূরণ করতে কোম্পানিটির ৪.৮২ শতাংশ শেয়ার প্রয়োজন। এর জন্য কোম্পানিটিকে ২৬ লাখ ৫২ হাজার ১০০টি শেয়ার সংগ্রহ করতে হবে।

ফ্লোর প্রাইস আরোপের পর কোম্পানিটির শেয়ার ফ্লোর প্রাইস ৬১ টাকা ৮০ পয়সায় দাঁড়িয়েছিল। এর মধ্যে গত বছর ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ফ্লোর প্রাইস টপকে ওপরে লেনদেন হয় শেয়ারটি। কিন্তু এক সপ্তাহ পর ফের ফ্লোর প্রাইসে ফিরে আসে। সেই থেকে ফ্লোর প্রাইসেই শেয়ারটি আটকে আছে।

শেয়ারনিউজ, ০৯সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাঠকের মতামত:

শেয়ারবাজার এর সর্বশেষ খবর

শেয়ারবাজার - এর সব খবর



রে