ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

চা বিক্রি করেই স্ত্রীকে নিয়ে বিশ্বের ২৬ দেশ ভ্রমণ

২০২৪ জুন ১৬ ২২:০৮:৫০
চা বিক্রি করেই স্ত্রীকে নিয়ে বিশ্বের ২৬ দেশ ভ্রমণ

ডেস্ক রিপোর্ট : বহু মানুষেরই বিশ্ব ভ্রমণের একটা স্বপ্ন থাকে। তবে সাধ ও সাধ্যের মধ্যে ভারসাম্য না থাকায় অনেকের সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয় না।

ভ্রমণের অন্যতম অনুষঙ্গ হল অর্থ। অর্থের যোগান ছাড়া দেশে ভ্রমণ করাও কঠিন। আ বিদেশের কথাতো ভাবাই যায় না।

কিন্তু ভারতের এক চা বিক্রেতা দেখিয়েছেন চাইলেই যেকোনো কাজ করা সম্ভব। চা বিক্রি করেই তিনি স্ত্রীকে নিয়ে বিশ্বের ২৬টি দেশে ঘুরেছেন।

ওই চা বিক্রেতার নাম বিজয়ন। তিনি ভারতের কোচির বাসিন্দা। ১৯৬৩ সালে তিনি কোচি শহরের ফুটপাতে চা বিক্রি শুরু করেন। তারপর ব্যবসা ভালো চলছিল বলে বিজয়ন একটা দোকান খোলেন।

ওই দোকানের নাম শ্রী বালাজি কফি হাউস। কেরালার গান্ধী নগরের সেলিম রাজন রোডে অবস্থিত। বিজয়নের দোকানে কোনো কর্মচারী নেই। স্ত্রী মোহনা বিজয়নকে সমর্থন করেন।

দোকানে বিক্রি করা টাকা থেকে প্রতিদিন ৩০০ টাকা সাশ্রয় করেন বিদেশ ভ্রমণের জন্য। কিন্তু দৈনিক ৩০০ টাকা আমানত বাইরে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট নয়। তাই তাকে ঘুরতে ব্যাংকের দ্বারস্থ হতে হয়। সঞ্চিত টাকা ও ব্যাংক ঋণের টাকা নিয়ে তিনি সিঙ্গাপুর, সুইজারল্যান্ড, মালদ্বীপ, আমেরিকা, চীন, আর্জেন্টিনা, থাইল্যান্ডসহ বিশ্বের ২৬টি দেশ ভ্রমণ করেন। যতবার বিদেশ থেকে ফিরেছেন ততবারই চা বিক্রি করে ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করেছেন।

এই চায়ের দোকানে প্রতিদিন প্রায় ৩০০ কাপ চা বিক্রি হয়। প্রতি কাপের দাম ৫ টাকা। গড়ে ১৫০০ টাকা আয় থেকে তারা বিদেশ ভ্রমণের জন্য ৩০০ টাকা সাশ্রয় করে। প্রথমে তারা ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে যাতায়াত করত। এরপর স্ত্রী মোহনা বিদেশ যাওয়ার স্বপ্ন দেখেন।

এরপর বিজয়ন বাইরে যাওয়ার চেষ্টা করে। ২০০৮ সালের পর পাসপোর্ট ও অন্যান্য কাগজপত্র গুছিয়ে বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ শুরু করেন।

ব্যাংক ঋণ নিয়ে বিদেশে পাড়ি জমান। এরপর মুখে মুখে তাদের নাম ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে তারা বিদেশ ভ্রমণের জন্য স্পনসর পেতে শুরু করে। প্রত্যেকেই স্পনসরদের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, রাশিয়া ভ্রমণ করেছেন।

২০২১ সালে রাশিয়া ভ্রমণের পর বিজয়ন মারা যান। এখন স্ত্রী মোহনা দোকান দেখাশোনা করছেন। বিজয়নের মেয়ে কাজ করে বলে মায়ের অনেক উপকার হয়েছে।

এক টিভি সাক্ষাৎকারে বিজয়নের স্ত্রী মোহনা বলেন, অনেকেই আমাদের কাছে ভ্রমণের পরামর্শ চান, আমি তাদের টাকা জমা দিতে বলি। আমি জাপানে যেতে চাই। পরিবারের সবাইকে নিয়ে সেখানে যাবো। আমার স্বামী আমাকে শিখিয়েছে, স্বপ্ন কখনো থামে না।

চলচ্চিত্র নির্মাতা এম মোহনান চা বিক্রেতা বিজয়ন এবং তার স্ত্রী মোহনাকে নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি তৈরি করেছিলেন যার শিরোনাম ছিল 'ইনভিজিবল উইংস' যা ২০১৮ সালে নন-ফিকশনের জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেছে।

এএসএম/

পাঠকের মতামত:

লাইফ স্টাইল এর সর্বশেষ খবর

লাইফ স্টাইল - এর সব খবর



রে