ঢাকা, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪
Sharenews24

আমেরিকা-কানাডায় কেন সরিষার তেলে রান্না নিষিদ্ধ?

২০২৪ জুন ১৮ ১২:৩৩:৩৩
আমেরিকা-কানাডায় কেন সরিষার তেলে রান্না নিষিদ্ধ?

প্রবাস ডেস্ক : সরিষার তেলের উপকারিতা যেমন, তেমন সরিষার তেলে রান্নায় স্বাদও হয় খুব। কিন্তু, জানলে অবাক হবেন বিশ্বের এমন কিছু দেশ রয়েছে, যেখানে রান্নায় সরিষার তেলের ব্যবহার নিষিদ্ধ। তার মধ্যে অন্যত হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ ভোজ্য তেল হিসাবে সরিষার তেল ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে। কানাডা এবং ইউরোপের একাধিক দেশেও সরিষার তেলের ব্যবহার নিষিদ্ধ হয়েছে।

তবে আমেরিকার মতো পুরোপুরি না হলেও অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের মতো দেশে সরিষার তেল ঠিক কতটুকু রান্নায় দেওয়া যাবে, তার মাপকাঠি ঠিক করে দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বলছে, সরিষার তেলে ইউরিকিক অ্যাসিড বেশি থাকে। এটি একটি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এটিকে মানুষের জন্য অস্বাস্থ্যকর বলে মনে করে। তাদের মতে, এই অ্যাসিড অতিরিক্ত মাত্রায় শরীরে প্রবেশ করলে বিপাকক্রিয়ায় প্রভাব পড়ে। ফলে রান্নায় প্রচুর পরিমাণে সরিষার তেল ব্যবহার করা হলে সেই খাবার হজম হতে দেরি হওয়ার পাশাপাশি পেট খারাপও হয়।

ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন আরও বলেছে, এই যৌগটি বেশি পরিমাণে শরীরে প্রবেশ করলে মস্তিষ্কের ক্ষতি করতে পারে। স্মৃতিশক্তি ধীরে ধীরে কমে যেতে পারে। এই অ্যাসিড হার্টের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে। হৃদপিন্ডের পেশীতে চর্বি জমে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়। আমেরিকানরা সরিষার তেলে যতই কষ্ট পান না কেন, এই তেলের উপকারিতা কম নয়।

তবে ভারতের চিকিৎসকরা বলছেন, সরিষার বীজে থাকা কপার, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম এবং সেলেনিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। সরিষার তেল পরিমিতভাবে রান্নায় ব্যবহার করলে ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়। খারাপ কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে থাকে। সরিষার তেলে ওমেগা ৩ এবং ওমেগা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা শরীরে কোলেস্টেরলের ভারসাম্য বজায় রাখতে পারে।

মামুন/

পাঠকের মতামত:

প্রবাস এর সর্বশেষ খবর

প্রবাস - এর সব খবর



রে