ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪
Sharenews24

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পর এবার নিখোঁজ প্রতিরক্ষামন্ত্রী

২০২৩ সেপ্টেম্বর ১৪ ১৯:৫৫:৪৩
চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পর এবার নিখোঁজ প্রতিরক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তাকে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে জনসমক্ষে দেখা যাচ্ছে না।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং দেশের পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র অস্ত্রাগারের তদারকিকারী দুই সেনা জেনারেল সহ চীনের বেশ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তাকে প্রতিস্থাপন করার পরে জেনারেল লি শংফু জনসাধারণের দৃষ্টি থেকে নিখোঁজ হওয়ার গুজব সামনে এসেছে।

সরকারী রদবদলের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিন গ্যাংকে বরখাস্ত করার খবর সবচেয়ে বেশি আগ্রহের সৃষ্টি করেছে। একজন শীর্ষ মার্কিন কূটনীতিক বিষয়টিকে আগাথা ক্রিস্টির উপন্যাসের সাথে তুলনা করেছিলেন।

জাপানে ওই মার্কিন রাষ্ট্রদূত রাহম ইমানুয়েল এক্সে পোস্ট করেছেন- "প্রথম, পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিন গ্যাং নিখোঁজ হন, তারপরে রকেট ফোর্সের কমান্ডাররা নিখোঁজ হন এবং এখন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লি শাংফুকে দুই সপ্তাহ ধরে জনসমক্ষে দেখা যায়নি। এই বেকারত্বের দৌড়ে কে জিতবে? চীনের যুব সমাজ নাকি শির মন্ত্রিসভা? "

জেনারেল লিকে শেষবার জনসমক্ষে দেখা গিয়েছিল ২৯শে আগস্ট, যখন তিনি বেইজিংয়ে তৃতীয় চীন-আফ্রিকা শান্তি ও নিরাপত্তা ফোরামে একটি বক্তৃতা দেন। একই মাসে, প্রতিবেদনে উঠে আসে যে শি, একটি বড় রদবদল করে, দুই রকেট ফোর্স জেনারেলকে প্রতিস্থাপন করেছেন যারা দেশের পারমাণবিক এবং ক্ষেপণাস্ত্র অস্ত্রাগারের তদারকি করছিলেন।

দুই জেনারেল - পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) রকেট ফোর্স ইউনিটের প্রধান লি ইউচাও এবং তার ডেপুটি লিউ গুয়াংবিন -কে কয়েক মাস ধরে জনসমক্ষে দেখা যায়নি। একইভাবে, জুলাই মাসে এটি প্রকাশ্যে আসে যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিন গ্যাংকে তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে জনসমক্ষে দেখা যায়নি।

শ্রীলঙ্কা, রাশিয়া এবং ভিয়েতনামের সফররত কর্মকর্তাদের সাথে দেখা করার সময় কিনকে ২৫ জুন সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল। তারপর থেকে, ৫৭ বছর বয়সী এই কূটনীতিক, শির ঘনিষ্ঠ আস্থাভাজন, একজন টিভি উপস্থাপকের সাথে তার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন, তারপর তাঁকে আর জনসমক্ষে দেখা যায়নি। কিনের পূর্বসূরি ওয়াং ই -কে এই সিনিয়র পদে বসানো হয়।

জুলাই মাসেও রকেট বাহিনীতে নতুন জেনারেল নিয়োগের এক সপ্তাহ পরে, সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট এই পদক্ষেপটিকে একটি নতুন দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের অংশ বলে জানিয়েছে। দেশের পারমাণবিক অস্ত্রবিভাগে ভূমিকার পাশাপাশি, তাইওয়ানের উপর সামরিক চাপ বাড়ানোর জন্য বেইজিংয়ের কাছে রকেট বাহিনী একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

চীনের রাষ্ট্র-চালিত সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া জানিয়েছে, শি সম্প্রতি ৯ সেপ্টেম্বর "সশস্ত্র বাহিনীর উচ্চ স্তরের অখণ্ডতা ও ঐক্য বজায় রাখা এবং সেনাবাহিনীকে স্থিতিশীল ও সুরক্ষিত রাখা সম্পর্কে মন্তব্য করেছিলেন।

এদিকে, জনসমক্ষ থেকে প্রতিরক্ষামন্ত্রীর অনুপস্থিতি সামনে এসেছে চীনের সামরিক বাহিনী পাঁচ বছর আগের হার্ডওয়্যার সংগ্রহের সাথে জড়িত দুর্নীতির মামলার তদন্ত শুরু করার পরে।

আগস্টে, আটলান্টিক একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যেখানে বেইজিং-ভিত্তিক লেখক মাইকেল শুম্যান লিখেছেন, "চীনের কমিউনিস্ট শাসন সবসময়ই অস্বচ্ছ। কিন্তু চীনের বৈশ্বিক শক্তি যত বাড়বে, কমিউনিস্ট পার্টির গোপনীয়তা ততই বাড়বে''। সূত্র : ইন্ডিপেন্ডেন্ট

শেয়ারনিউজ, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাঠকের মতামত:

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ খবর

আন্তর্জাতিক - এর সব খবর



রে