ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪
Sharenews24

হোটেল রুমে জায়েদ-সায়ন্তিকার থাকা নিয়ে পরিচালকের বিস্ফোরক মন্তব্য

২০২৩ সেপ্টেম্বর ১৮ ১৩:৩২:২১
হোটেল রুমে জায়েদ-সায়ন্তিকার থাকা নিয়ে পরিচালকের বিস্ফোরক মন্তব্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : কলকাতার অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায় সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ‘ছায়াবাজ’ ছবির শুটিং করতে বাংলাদেশে আসেন। সপ্তাহখানেক পর আচমকাই মাঝপথে শুটিং ফেলে কলকাতা ফিরে যান এই অভিনেত্রী।

শোনা যাচ্ছিল, নৃত্য পরিচালক মাইকেল ও প্রযোজক মনিরুল ইসলামের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে বাংলাদেশ থেকে চলে আসেন অভিনেত্রী। সায়ন্তিকার অভিযোগ, প্রযোজকের কারণে চূড়ান্ত হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে তাকে।

তবে সায়ন্তিকার এই অভিযোগের পাল্টা চাঞ্চল্যকর দাবী করলেন ছবির প্রযোজক মনিরুল ইসলাম। ‘ছায়াবাজ’ ছবির নায়ক জায়েদ খান ও সায়ন্তিকার দিকে ইঙ্গিত করে করেছেন বিস্ফোরক মন্তব্য।

প্রযোজক মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘নৃত্য পরিচালক মাইকেল বাবুর ডিরেকশনে গানের শুটিং করার সময় ড্রেস পরিবর্তন করার জন্য দুপুর ২টায় হোটেলে যান নায়ক-নায়িকা। ফিরে আসেন সন্ধ্যা ৬টায়। ড্রেস চেঞ্জ করতে চার ঘণ্টা সময় লাগে, এমনটা কখনো দেখিনি।’

তিনি বলেন, ‘যেদিন আমরা শুটিং প্যাকআপ করে পুরো ইউনিট নিয়ে চলে আসি, সেদিন নায়ক-নায়িকা হোটেলেই থেকে যান। ওই দিন তারা সেখানে কী করছিলেন? এই প্রশ্নের জবাব তারা কী দেবেন? এই কথাগুলো কখনো সামনে আনতে চাইনি। কিন্তু এখন আর চুপ করে থাকতে পারলাম না।’

শুটিংয়ে অব্যবস্থাপনার যে অভিযোগ অভিনেত্রী আনেন, সেই প্রসঙ্গে মনিরুল বলেন, ‘কী ভাবে শুটিং হবে, এটা ঠিক করেন পরিচালক। আগে থেকে পরিকল্পনা ছিল গানের দৃশ্য দিয়ে শুরু হবে শুটিং। অপেশাদারি আচরণ আমি নই, সায়ন্তিকা করেছেন।

তিনি বলেন, চুক্তির বাইরে আমরা তাকে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছি পোশাকের জন্য। অথচ তিনি পোশাক না নিয়ে চলে আসেন। এর পর আবার ড্রেসম্যান মনিরকে দিয়ে পোশাকের ব্যবস্থা করে দিয়েছি। সেই পোশাকগুলোও সায়ন্তিকা ফেরত দিয়ে যাননি।’

অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ থেকে বিষয়টি এখন কাঁদা ছোড়াছুঁড়ির পর্যায়ে পৌঁছেছে। এর মাঝেই প্রশ্ন উঠছে ‘ছায়াবাজ’ ছবির ভবিষ্যৎ নিয়ে।

শেয়ারনিউজ, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাঠকের মতামত:

বিনোদন এর সর্বশেষ খবর

বিনোদন - এর সব খবর



রে