ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪
Sharenews24

জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন কাতার প্রবাসীরা, আবেদন করতে হবে যেভাবে

২০২৪ এপ্রিল ১৯ ১৯:০৩:৩২
জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন কাতার প্রবাসীরা, আবেদন করতে হবে যেভাবে

প্রবাসডেস্ক : জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন কাতার প্রবাসীরা। আগামীকাল ২০ এপ্রিল থেকে কাতারের রাজধানী দোহায় বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘জাতীয় পরিচয় পত্র’ দেয়া শুরু হবে।

কেবল নতুনভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র নিতে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা (যাদের জন্ম তারিখ ন্যূনতম ০১ জানুয়ারি ২০০৭ বা এর পূর্বে) https://services.nidw.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে নিজ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর অনলাইন আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনকারীকে নিজ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় অবশ্যই কাতারি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করতে হবে। আবেদনকারী উক্ত মোবাইলে একটি OTP পাবেন।

পরবর্তীতে যেকোনো আইনগত জটিলতা এড়ানোর জন্য নির্বাচন কমিশন প্রবাসীদেরকে অ্যাকাউন্ট তৈরির সময় বাংলাদেশি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার না করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

আপগ্রেড, মেইনটেইন্যান্স এবং অন্যান্য টেকনিক্যাল কারণে অনেক সময় সাময়িকভাবে OTP প্রদান বন্ধ থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে আবেদনকারীকে কিছু সময় পরে পুনরায় চেষ্টা করার অনুরোধ জানানো হয়।

অনলাইন আবেদন সাবমিট করার পর, ওয়েব পোর্টালের ওপরে বাম পাশে ‘হোম’ বাটনে ক্লিক করুন এবং ‘অ্যাপয়েন্টমেন্ট’ ট্যাব থেকে আপনার সুবিধাজনক সময়ে দূতাবাসে বায়োমেট্রিক অ্যাপয়েন্টমেন্ট গ্রহণ করুন (স্লট খালি থাকা সাপেক্ষে)।

আবেদনকারীকে মোবাইল মেসেজের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিশ্চিত করা হবে। পরবর্তীতে নির্ধারিত তারিখে আবেদনকারীকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ সশরীরে দূতাবাসে এসে আবেদন প্রক্রিয়া (বায়োমেট্রিক) সম্পন্ন করতে হবে। অ্যাপয়েন্টমেন্ট ব্যতীত দূতাবাসে কোনোভাবেই বায়োমেট্রিক আবেদনের সুযোগ নেই। দূতাবাসে জাতীয় পরিচয়পত্রের বায়োমেট্রিক আবেদন করার সময়সীমা: সকাল ১০.৩০ হতে দুপুর ১.৩০ (ছুটির দিন ব্যতীত)

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র : • অনলাইন আবেদনের কপি • মূল পাসপোর্ট • পাসপোর্টের ফটোকপি• অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ (বাংলা ও ইংরেজিতে সঠিক তথ্য সংবলিত)• সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি

অনলাইনে আবেদন করার সময়ে অবশ্যই নিম্নোক্ত বিষয় বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে:

১) Place of Residence হিসেবে ‘কাতার’ সিলেক্ট করতে হবে।

২) আবেদনকারীর বাংলাদেশের ‘বর্তমান ঠিকানা’, তার ভোটার এলাকা হিসেবে বিবেচিত হবে। সুতরাং আবেদনপত্রে বর্তমান ঠিকানা প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষভাবে যত্নবান হতে হবে।

৩) একজন শনাক্তকারী ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর প্রদান করতে হবে এবং আবেদন ফরমে শনাক্তকারী স্বাক্ষর নিতে হবে।

৪) আবেদনকারীকে অবশ্যই বাংলাদেশে বসবাসরত যে কোন প্রতিনিধির (বর্তমান ঠিকানায়) এবংতার কাতারের নিজ মোবাইল নম্বর প্রদান করতে হবে। সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিস আবেদনকারীর বর্তমান ঠিকানায় অবস্থানরত প্রতিনিধির সঙ্গে তথ্য যাচাইকরণের নিমিত্ত ফোনে যোগাযোগ করবেন।

উল্লেখ্য যে, জাতীয় পরিচয়পত্রের কোন প্রকার সংশোধনী আবেদন দূতাবাসে আইনি সীমাবদ্ধতার কারণে গ্রহণ করা হয় না। শুধুমাত্র নতুন জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য আবেদন গ্রহণ করা হয়।

শেয়ারনিউজ, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

পাঠকের মতামত:

প্রবাস এর সর্বশেষ খবর

প্রবাস - এর সব খবর



রে