ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪
Sharenews24

ডিজিটাল ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা শুরু যুক্তরাজ্যে, কমবে জালিয়াতি

২০২৪ এপ্রিল ১৯ ২১:৫০:৪৭
ডিজিটাল ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা শুরু যুক্তরাজ্যে, কমবে জালিয়াতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাজ্য হোম অফিস ডিজিটাল ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা শুরু করেছে। এতে ই-ভিসাতে স্যুইচ করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে হোম অফিসের পক্ষ থেকে। অভিবাসন নথিসহ লাখ লাখ এর আওতায় আসবে। ।

১৭ই এপ্রিল দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে সরকার ২০২৫ সালের মধ্যে সম্পূর্ণ ডিজিটাল ইমিগ্রেশন এবং সীমান্ত ব্যবস্থার লক্ষ্যে রয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, যুক্তরাজ্য হোম অফিস ডিজিটাল ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা শুরু করেছে। এতে ই-ভিসাতে স্যুইচ করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে হোম অফিসের ভিসাধারীরা হোম অফিস থেকে একটি ই-মেইল পাবেন, যাতে তাদের ই-ভিসা অ্যাক্সেস করতে ইউকে ভিসা এবং অভিবাসন (UKVI) অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয় বায়োমেট্রিক রেসিডেন্স পারমিট (BRPs) নামে পরিচিত ভৌত নথিগুলি ধীরে ধীরে বন্ধ করা হবে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী প্রায় সমস্ত ভিসাধারীদের একটি ই-ভিসার অ্যাক্সেস থাকবে, হোম অফিস প্রতিশ্রুতি দিয়েছে নতুন এই ই-ভিসা পদ্ধতি চালুর মাধ্যমে জালিয়াতি, ক্ষতি এবং শারীরিক নথির অপব্যবহারের ঝুঁকি কমবে এবং সীমান্ত নিরাপত্তা জোরদার হবে বলে সরকার আশা করছে।

হোম অফিস বলছে, বর্তমানে বিদেশ ভ্রমণ এবং ছুটির দিন থেকে যুক্তরাজ্যে ফিরে আসার সময় শারীরিক নথিপত্র দেখাতে হয় কিন্তু এই পরিবর্তনগুলি লক্ষ লক্ষ ভিসাধারীদের জন্য ভ্রমণ প্রক্রিয়া সহজ করবে।

যদি একটি বিআরপি কার্ড বিদেশে হারিয়ে যায় বা চুরি হয়ে যায়, তাহলে একজন ভিসাধারীকে বর্তমানে এককালীন প্রতিস্থাপনের জন্য ১৫৪ পাউন্ড প্রদান করতে হয়, এর ফলে তাদের যুক্তরাজ্যে পুনরায় প্রবেশের অনুমতি পেতে হয় ।

আইনি অভিবাসন এবং সীমান্ত মন্ত্রী টম পার্সগ্লোভ বলেছেন, একটি ডিজিটাল সিস্টেমের সাথে ভৌত বিআরপি প্রতিস্থাপন করা। এটি কে এখানে বসবাস করতে, কাজ করতে বা পড়াশোনা করতে আসে তার উপর দৃঢ় নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করবে।

পার্সগ্লোভ আরও বলেছেন আমরা ইতিমধ্যেই সীমানা এবং অভিবাসন ব্যবস্থাকে ডিজিটালভাবে রূপান্তর করার জন্য সত্যিই উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নিয়েছি এবং ই-ভিসার এই বিস্তৃত রোলআউট সেই প্রক্রিয়ার একটি অংশ।

ই-ভিসা দিয়ে ভৌত অভিবাসন নথি প্রতিস্থাপন করা হলে এখানে কে বসবাস করতে আসে, কাজ করতে আসে বা অধ্যয়ন করতে আসে তার উপর দৃঢ় নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করবে।

এই ব্যবস্থা সীমান্ত নিরাপত্তা জোরদার করবে এবং ইমিগ্রেশন সিস্টেমের অপব্যবহার রোধ করবে।

শেয়ারনিউজ, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

পাঠকের মতামত:

প্রবাস এর সর্বশেষ খবর

প্রবাস - এর সব খবর



রে