ঢাকা, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
Sharenews24

হজযাত্রীদের মাধ্যমে জেদ্দায় জর্দা পাঠাচ্ছে!

২০২৪ মে ১৭ ১৭:০০:৪০
হজযাত্রীদের মাধ্যমে জেদ্দায় জর্দা পাঠাচ্ছে!

প্রবাস ডেস্ক : হজ এজেন্সিগুলো হজযাত্রীদের মাধ্যমে জর্দার কার্টন সৌদি আরবে পাঠাচ্ছে। যা জেদ্দা বিমানবন্দরে আটকানো হচ্ছে। এতে দেশের সম্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে।

অন্যদিকে, হজ এজেন্সিগুলো হজযাত্রীদের সঙ্গে হজ গাইড বা প্রতিনিধি না পাঠানোয় হজযাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এই ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে হজ এজেন্সিগুলোকে সতর্ক করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

গত ১২ মে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জুম প্ল্যাটফর্মে জেদ্দা বিমানবন্দর সার্ভিসের সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক আবদুর রহমান ঘানামের সঙ্গে বৈঠকের পর ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এসব নির্দেশনা জারি করে। সভায় ধর্ম বিষয়ক, বাংলাদেশ হজ অফিস, মক্কা ও জেদ্দার কর্মকর্তা ও হজ এজেন্সির মালিকরা অংশ নেন।

বৈঠকে সৌদি আরবের পক্ষ থেকে হজ এজেন্সি কর্তৃক সৌদি ই-হজ ব্যবস্থায় সঠিক ও নিয়মিতভাবে ফ্লাইটের তথ্য না দেওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়। হজ ফ্লাইটের ডাটা এন্ট্রি না করায় মদিনা ও জেদ্দা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ হজযাত্রীদের প্রয়োজনীয় তথ্য জানতে পারছে না। ফলে কোন ফ্লাইটে কতজন হজযাত্রী আসছেন, কোন মোয়াল্লেম তীর্থযাত্রী এবং কোন হোটেল বা বাড়িতে তাদের থাকার ব্যবস্থা ইত্যাদি নিয়ে সমস্যা দেখা দেয়।

এছাড়া হজযাত্রীদের পরিবহন ও তাদের লাগেজ নিয়েও সমস্যা দেখা দেয়। মোয়াল্লেমের প্রতিনিধিও হোটেল বা বাড়িতে পরিষেবা দেওয়ার জন্য উপস্থিত নেই। এই কারণে হজযাত্রীদের কাঙ্খিত সেবা দেওয়া হচ্ছে না এবং হজযাত্রীরা মক্কায় যাওয়ার রুট সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

এই বৈঠকে হজ ফ্লাইট যাত্রা শুরু করার আগে সৌদি ই-হজ সিস্টেমে সঠিকভাবে ফ্লাইট ডেটা প্রবেশের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট সংস্থার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও কিছু অনিয়মের বিষয়ে হজ এজেন্সিগুলোকে সতর্ক করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। কিছু এজেন্সি তাদের হজযাত্রীদের মাধ্যমে জর্দার কার্টন পাঠিয়েছে। যেগুলি জেদ্দা বিমানবন্দরে আটকানো হয়। এতে দেশের সম্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। অনেক এজেন্সি হজযাত্রীদের সঙ্গে হজ গাইড বা প্রতিনিধি না পাঠানোয় হজযাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

হজ প্যাকেজে উল্লেখ থাকা সত্ত্বেও অনেক এজেন্সি হজযাত্রীদের কাছ থেকে হজে যাওয়ার আগে কোরবানি বাবদ অতিরিক্ত অর্থ নিচ্ছেন। হজযাত্রী তার ইচ্ছামাফিক সৌদি সরকারের ব্যাংকের কুপন ক্রয় করে বা তার নিজের ব্যবস্থাপনায় কোরবানি সম্পন্ন করবেন। এজেন্সিগুলো কোনোভাবেই কোরবানির টাকা নিতে পারে না। এই বিষয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট এজেন্সির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

শেয়ারনিউজ, ১৭ মে ২০২৪

পাঠকের মতামত:

প্রবাস এর সর্বশেষ খবর

প্রবাস - এর সব খবর



রে