ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪
Sharenews24

ফের নিভে গেল ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা?

২০২৪ মে ২১ ১৫:২২:১৪
ফের নিভে গেল ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা?

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছয় কর্মদিবস টানা পতনের পর গতকাল সোমবারও দিনের প্রথম ভাগে বড় পতন দেখা গিয়েছিল দেশের উভয় শেয়ারবাজারে। তবে শেষ ভাগে পতনের মাত্রা অনেকটা কমে যায় এবং বাজার পজিটিভ ট্রেন্ডে দেখা যায়। শেষভাগে সেল প্রেসারের চেয়ে বাই প্রেসারের মাত্রা বাড়তে দেখা যায়। এতে বিনিয়োগকারীরা আশাবাদী ছিল, আজ মঙ্গলবার থেকে বাজার ঘুরে দাঁড়াবে।

এদিকে, বিকেলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাজার ঘুরানোর জন্য বেশ কয়েকটি নির্দেশনা জারি করে। যার মধ্যে ছিল- আইসিবির লেনদেন সক্ষমতা বাড়ানোরে জন্য সুবিধা প্রদান, জেড ক্যাটাগরি শেয়ার স্থানান্তরের বিষয়ে নতুন নির্দেশনা, গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের সতর্কতা ইত্যাদি।

সব মিলিয়ে আজ মঙ্গলবার ইতিবাচক আবহের মধ্যে দিয়েই বাজারে লেনদেন শুরু হয়। লেনদেনের শরুতেই বাজার বেশ বুলিশ ট্রেন্ডেই সামনে এগুতে থাকে। লেনদেনের ৪৪ মিনিটের মাথায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ৯২ পয়েন্টের মতো বেড়ে যায়। এই সময়ে আগের দিনের ক্লোজিং সূচক ৫ হাজার ৩৯৩ পয়েন্ট থেকে বেড়ে প্রায় ৫ হাজার ৪৮৫ পয়েন্টে দাঁড়ায়। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে সূচক ৯২ পয়েন্টের মতো বেড়ে লেনদেন হয়। সূচকের এমন ঊর্ধ্বগতিতে অন্তত দুই ডজন কোম্পানির শেয়ার বিক্রেতাহীন হয়ে যায়। এতে ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের মুখে কিছুটা হাসির আভা দেখা যায়।

কিন্তু তাদের সেই হাসির আভা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। বরাবরের মতো অদৃশ্য কালোছায়া বাজারকে আবার গ্রাস করতে থাকে। তারপর থেকে টানা সূচক নামতে থাকে। এক পর্যায়ে বড় উত্থানের বাজার পতনের বৃত্তে টার্ন নেয়। তারপর দুই-একবার সূচক ওঠার চেষ্টা করে। কিন্তু সফল হয়নি। বাজার পতনের গর্তেই ঘুরপাক খায়। দিনশেষে ৯২ পয়েন্টের উত্থানের সূচক সাড়ে ২২ পয়েন্টে পতনে শেষ হয়। এতে দেখা যায়, আজ ৯২ পয়েন্ট উত্থান গায়েব হওয়ার পর আরও সাড়ে ২২ পয়েন্ট উধাও হয়ে গেছে। অর্থাৎ একদিনেই ডিএসইর সূচক (৯২+৯২+২২) ২০৬ পয়েন্ট হাওয়া।

মঙ্গলবারের বাজার পর্যালোচনা

আজ সপ্তাহের তৃতীয় কর্মদিবস মঙ্গলবার (২১ মে) ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২২.৫৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৩৭১ পয়েন্টে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরীয়াহ সূচক ৬.১৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ১৭৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৮.৯৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯২৯ পয়েন্টে।

আজ ডিএসইতে ৫৯১ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের কর্মদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৬১ কোটি ২১ লাখ টাকার।

আজ ডিএসইতে ৩৯৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০২ টির, কমেছে ২৩৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৬টির।

অপর শেয়ারবাজার চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএই) আজ লেনদেন হয়েছে ৭ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৭০ কোটি ১৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট।

এদিন সিএসইতে ২৪১টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭২টির, কমেছে ১৪১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টি প্রতিষ্ঠানের।

আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২২৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট। এরমধ্যে দাম বেড়েছিল ৩৬টির, কমেছিল ১৬৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট।

শেয়ারনিউজ, ২১ মে ২০২৪ থেকে

পাঠকের মতামত:

শেয়ারবাজার এর সর্বশেষ খবর

শেয়ারবাজার - এর সব খবর



রে