ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪
Sharenews24

বিনিয়োগ নিয়ম লঙ্ঘন করেছে ২১ জীবন বিমা কোম্পানি

২০২৪ মে ২৪ ১৫:১১:২৭
বিনিয়োগ নিয়ম লঙ্ঘন করেছে ২১ জীবন বিমা কোম্পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক : জীবন বিমা কোম্পানিগুলোর মোট সম্পদের ৩০ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু ২১টি জীবন বিমা কোম্পানি সেই নিয়ম লঙ্ঘন করেছে। তারা মোট সম্পদের ৩০ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ করেনি বলে জানিয়েছে বিমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

কোম্পানিগুলো হলো- আকিজ তাকাফুল, আলফা ইসলামী, বায়রা, বেঙ্গল ইসলামী, বেস্ট লাইফ, চার্টার্ড লাইফ, ডায়মন্ড লাইফ, ফারইস্ট ইসলামী, গোল্ডেন লাইফ, মেঘনা লাইফ ও মার্কেন্টাইল ইসলামী, এনআরবি ইসলামিক লাইফ, পদ্মা ইসলামী, পপুলার লাইফ, প্রাইম ইসলামি, প্রোটেক্টিভ ইসলামি লাইফ, সোনালী লাইফ, সানফ্লাওয়ার লাইফ, সানলাইফ, ট্রাস্ট ইসলামী লাইফ ও জেনিথ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। এরমধ্যে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিও রয়েছে।

বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) এক কর্মকর্তা জানান, কোম্পানিগুলোর ২০২৩ সালের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

জীবন বিমাকারীর সম্পদ বিনিয়োগ ও সংরক্ষণ বিধিমালা-২০১৯ এ বলা হয়েছে, বিমা কোম্পানিগুলোকে তাদের সম্পদের ন্যূনতম ৩০ শতাংশ ট্রেজারি বিল ও বন্ডে বিনিয়োগ করতে হবে।

আইডিআরএ'র ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোম্পানিগুলো 'দীর্ঘদিন ধরে' আইন লঙ্ঘন করে আসছিল। তবে তারা কোনো সময়সীমা উল্লেখ করেনি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জীবন বিমা কোম্পানিগুলো যদি সরকারি সিকিউরিটিজে পর্যাপ্ত বিনিয়োগ করে, তাহলে তা কোম্পানি ও গ্রাহক উভয়ের জন্য নিরাপদ।

এতে আরও বলা হয়েছে, সরকার এই তহবিল উন্নয়ন কাজেও ব্যবহার করতে পারে, তাই এটাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তবে ট্রেজারি বিল ও বন্ডের পরিবর্তে ২১টি বিমা কোম্পানি তাদের অর্থ বিনিয়োগে জমি ও সম্পত্তি, শেয়ারবাজার এবং ব্যাংকের সঞ্চয়পত্র বেছে নিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২১টি কোম্পানির মধ্যে ৯টি তাদের সম্পদের ৫ শতাংশেরও কম সরকারি খাতে বিনিয়োগ করেছে, ৪টির ১৫ শতাংশের কম বিনিয়োগ আছে এবং অন্য ৪টির ২৫ শতাংশের কম বিনিয়োগ রয়েছে।

শেয়ারনিউজ, ২৪ মে ২০২৪

পাঠকের মতামত:

অনুসন্ধানী এর সর্বশেষ খবর

অনুসন্ধানী - এর সব খবর



রে